প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ফর্ম ফিলাপ | pradhan mantri awas yojana online apply

0

pradhan mantri awas yojana online apply/ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ফর্ম ফিলাপ

একটা ছোট্ট বাড়ির আশা তো সবারই থাকে, তাই না! কিন্তু, যে পরিমাণে ইট, বালি, সিমেন্টের দাম বাড়ছে, তাতে জানি সবসময় সবার পক্ষে মাথা গোঁজার নিজস্ব ঠাইটুকু করে ওঠা সম্ভব হয় না। আর চিন্তা করবেন না, আপনার কষ্টের দিন শেষ। নিজের বাড়ি বানানোটা আর স্বপ্ন নয়। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা- গ্রামীনে আবেদন করে আপনি তৈরি করতে পারেন আপনার মনের মতো বাড়িটি। কি ভাবছেন! কিভাবে আবেদন করবেন? সেটা বলে দেবার জন্যই তো আমরা হাজির হয়েছি আপনার কাছে। আসুন জেনে নেই পদ্ধতিগুলো।

 

প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনা

প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনা বছর 2015 সালে শুরু হবে এবং বছর 2022 পর্যন্ত বাস্তবায়নের জন্য ছড়িয়ে যাবে এবং তিন টেকসই পর্যায়ক্রমে সম্পন্ন করা হবে:

  • প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ধাপ 1 : প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এর ধাপ 1 এপ্রিল 2015 থেকে মার্চ 2017 বিস্তির্ণ হবে এবং 100 শহরগুলির একটি মোট দেখতে হবে উন্নয়নমূলক কাজ শুরু এবং এই পর্বে সম্পন্ন.
  • প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ফেজ 2 : প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা এর ফেজ 2 এপ্রিল 2017 থেকে মার্চ 2019 থেকে এবং এই পর্বে বিস্তির্ণ হবে, 200 টি শহর এর একটি মোট আবৃত এবং উন্নয়ন করা হবে.
  • প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ধাপ 3 : PMAY এর ফেজ 3 এপ্রিল 2019 থেকে মার্চ 2022 থেকে এবং এই পর্যায়ে শহরের শাসনভার বাম আবৃত এবং উন্নয়ন করা হবে সময় বিস্তির্ণ হবে.

প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা সুবিধাভোগী

প্রধান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা যা সমাজ থেকে নির্দিষ্ট গ্রুপ, লক্ষ্য হবে:

  1. নারী, বর্ণ ও ধর্ম নির্বিশেষে
  2. সোসাইটির অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল বিভাগে (EWS)
  3. তফসিলি উপজাতি (উপজাতি)
  4. তফসিলি কাস্ট (এসসি)

ভারত সরকার এই বিভাগ থেকে মানুষের একটি ভর্তুকি বাবদ যাতে তারা নিজেদের এবং তাদের পরিবারের জন্য একটি বাড়ি কিনতে হবে.ভর্তুকি পরিমাণ 1 লাখ টাকা থেকে 2.30 লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে পারে

 

কীভাবে আবেদন করবেন?

অনলাইনে আবেদন

প্রথমে আপনাকে pmaymis.gov.in এই লিঙ্ক সার্চ করতে হবে। সার্চ করলেই পেজটা চলে আসবে।

পেজটা এলে ‘Citizen Application’ option আসবে। তাতে ক্লিক করতে হবে। তারপর অনেকগুলো  option আসবে, যার মধ্যে থেকে ‘Benefit Under Other 3 Components’-এ ক্লিক করতে হবে।

এরপর আপনাকে ‘আধার কার্ড’ (Aadhar Card)-এর নম্বর জানাতে বলা হবে। সেটা ঠিকঠাকভাবে দিতে হবে। তারপর ‘Check’ option-এ যেতে হবে ও ক্লিক করতে হবে।

ক্লিক করার পর একটা ফর্ম আসবে। সেটার মধ্যে আপনার যাবতীয় তথ্য যেমন রাজ্য , জেলা, নাম, বয়স ইত্যাদি সব জানতে চাওয়া হবে যা আপনাকে ঠিকঠাকভাবে দিতে হবে। আর জানতে চাওয়া হবে ব্যাঙ্ক-এর নাম, ঠিকানা, অ্যাকাউন্ট নম্বর এই সব। এইগুলোও আপনাকে ঠিকঠাকভাবে দিতে হবে। সব ভালোভাবে পূরণের পর ‘captcha’ option-এ যে সংখ্যাটা আসবে সেটা লিখে দিতে হবে ওখানে। এরপর ‘save’ option-এ ক্লিক করতে হবে। তাহলেই আপনার আবেদনটি পৌছে যাবে সরকারের নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে।

আপনাদের সুবিধার জন্য গোটা পদ্ধতিটা আরেকবার দেখে নিন- Google chrome – google – pmaymis.gov.in – (official website) – ‘Citizen Application’ – ‘Benefit Under Other 3 Components’ – Aadhar Card নম্বর দিন –  ‘check’ – ফর্ম আসবে যা পূরণ করতে হবে – ‘captcha no’ দিতে হবে – ‘save’

আবার অনেকসময় অনলাইনের বদলে গ্রাম সভার মাধ্যমে এই বাড়ি বানানোর প্রক্রিয়া চালানো হয়। সেক্ষেত্রে, আপনার গ্রাম সভার কাছে তো আপনার যাবতীয় তথ্য আছেই। যদি না থাকে, তাহলে এখনি দিয়ে আসুন। তাঁরা একটি তালিকা বানাবেন যাদের প্রয়োজন এই বাড়ির সেই ভিত্তিতে। তার মধ্যে আপনার নাম এলেই আপনি বাড়ি বানাবার টাকা পেয়ে যাবেন, তাহলে আর দেরী কেন! আজই যান ও আপনার স্বপ্নের বাড়ি বানানোর পথে প্রথম পা টা রেখেই ফেলুন। পরিবারকে নিয়ে নিজের বাড়িতে থাকা আর কয়েক দিনের অপেক্ষা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here